হাসপাতালের সিঁড়ির ডানে-বামে ও ফ্লোরে সর্বত্র ডেঙ্গু রোগী

0
56

রাজধানীর হাসপাতালগুলোতে বাড়ছে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা। ব্যাপকহারে রোগী আসায় হিমশিম খাচ্ছেন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। সিট না থাকায় অনেক হাসপাতাল থেকে রোগী ভর্তি না করে ফেরত দেয়া হচ্ছে। গুরুতর রোগীদের ভর্তি করতে এক হাসপাতাল থেকে অন্য হাসপাতালে ছুটছে রোগী ও স্বজনরা। আবশেষে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এসে রোগী ভর্তি করিয়ে ফ্লোরে বা বারান্দায় যেখানেই জায়গা পাওয়া যাচ্ছে সেখানেই রোগীর চিকিৎসা করাচ্ছেন তার স্বজনরা। এদিকে অধিক সংখ্যক রোগী আসায় তাদের সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনার মধ্যে রাখতে পারছে না হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

সরজমিন গিয়ে দেখা যায়, ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নতুন ভবনের পঞ্চম তলা থেকে শুরু করে অষ্টম তলা চারটা ফ্লোরে সিঁড়ির সামনে ডানে বামে সর্বত্রই ডেঙ্গু রোগী। পা ফেলার জায়গা নেই। ওয়ার্ডে প্রবেশ করতে হাঁটার রাস্তা ঘেঁষে শুয়ে আছেন রোগী। পাশেই বসে আছেন স্বজন। শিশু থেকে বৃদ্ধ সব বয়সের রোগী ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসা নিতে এসেছেন ঢামেকে।

ষষ্ঠ তলায় সিড়ির সামনে মেঝেতে ঠাঁই হয়েছে বরিশালের মাহবুবের। বয়স ২৮ বছর। অনেকটা বিরক্তি নিয়ে রোগীর ভাই মোকতার জানান, ডেঙ্গু হওয়ায় ভাইকে ঢাকায় নিয়ে আসছি। সাথে বাবা ও আমি আসছি। এখানে রোগীর সাথে এসে আমরাও রোগী হয়ে গেছি। কোথাও কোন সিট না পেয়ে ফ্লোরেই ভাইকে চিকিৎসা করাচ্ছি। প্রচুর গরম কোন পাখা নেই, কারেন্টের কোন লাইনও নেই যে একটা পাখা চালাবো। এখানে তেমন কোন ওষুধও দেওয়া হচ্ছে না একেকটা স্লিপ দেয় তা নিয়ে নিচে গিয়ে ওষুধ আনতে হয়।

আরও এক রোগীর ভাই ইয়াহিয়া জানান, তাদের বাড়ি ফরিদপুর সেখানে একাট হাসপাতালে তার ভাইকে সাতদিন চিকিৎসা দেয়া হয়। পরবর্তীতে রোগীর অবস্থা গুরুতর দেখা দিলে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়ে দেয়। কোথাও সিট না পেয়ে তার ভাইকে ফ্লোরেই রাখা হয়েছে। এখানে তার চিকিৎসা চললেও তার স্বজনরা অনেকটা রোগী হওয়ার পথে। পর্যাপ্ত আলো বাতাসের ব্যবস্থা নেই।

ডেঙ্গু রোগে আক্রান্ত শান্ত ১৪ বছরের এক ছেলে। বাড়ি নোয়াখালি। তার বাবা আহসানউল্লাহ জানান, ছেলেটায় ঢাকাতে কাজ করে। আমাকে ফোন করা হয়েছে ওর ডেঙ্গু হয়েছে। আমি দ্রুত ঢাকায় চলে আসি। কোন হাসপাতালে জায়গা পাওয়া যায়নি, ঢাকা মেডিকেল কলেজে হাসপাতালে এসে ফ্লোরে যায়গা পেয়ে এখানেই ছেলের চিকিৎসা করাচ্ছি। কিন্তু এখানে এতো রোগী ডাক্তার নার্স সবাই হিমশিম খাচ্ছেন।

ঢামেক সূত্র জানায়, বর্তমানে চিকিৎসাধীন আছে ৮৬১ জন। আর কিছু রোগীর ছাড়পত্র দেয়া হয়েছে।

গত ২৪ ঘণ্টায় ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ১ হাজার ৮৭০ জন। এর মধ্যে রাজধানী ঢাকার বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ১,০৫৩ জন। আর ঢাকার বাইরে ৮১৭ জন।

ঢাকাসহ দেশের ৬৪ জেলায় ছড়িয়ে পড়েছে ডেঙ্গু। রাজধানী এবং জেলা-উপজেলার হাসপাতালগুলোতে প্রতিদিনই বাড়ছে এ রোগে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা। এদিকে ঈদ উপলক্ষে যারা ঢাকা ছাড়তে চান তাদের রক্ত পরীক্ষা করার পরামর্শ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY