‘স্ত্রী বাসায় না থাকায় মেয়েকে ধর্ষণ করি’ এরপর…

0
10

নিজের মেয়েকে ধর্ষণের ফলে ছয় মাসের অন্তঃসত্ত্বা হওয়ায় স্বামীর বিরুদ্ধে মামলা করেছেন স্ত্রী। এ ঘটনায় মামলার আসামি বিল্লাল শুক্রবার (৬ জুলাই) ঢাকা মহানগর হাকিম আমিরুল হায়দার চৌধুরীর আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন।

এ বিষয়ে মামলা তদন্তকারী কর্মকর্তা তুরাগ থানার উপ-পরিদর্শক রেজিয়া খাতুন বলেন, নিজের মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগে বৃহস্পতিবার তুরাগ থানায় বিল্লাল হোসেনের বিরুদ্ধে তার স্ত্রী রুনা আক্তার মামলা করেন। বিল্লাল আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন। জবানবন্দিতে তিনি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন।

জবানবন্দিতে বিল্লাল বলেন, ‘আমি রিকশা চালাই আর স্ত্রী রুনা আক্তার গার্মেন্টে চাকরি করেন। আমরা তুরাগ থানা এলাকায় একটি বাসায় থাকতাম। একদিন স্ত্রী বাসায় না থাকায় জানুয়ারির দিকে মেয়েকে ধর্ষণ করি। পরে আরো দুই বার মেয়েকে ধর্ষণ করি। পরে আমার স্ত্রী বিষয়টি জেনে যায়। তবে বিষয়টি যাতে কাউকে না বলে সেজন্য স্ত্রী ও মেয়েকে হত্যার হুমকি দিতাম।’

তুরাগ থানার আদালতের নিবন্ধন কর্মকর্তা আব্দুল মান্নান বলেন, মেয়ে ধর্ষণের অভিযোগে বিল্লাল হোসেন জবানবন্দি দিয়েছেন। জবানবন্দি শেষে আদালত তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন। এছাড়া ভিকটিমকে জবানবন্দি শেষে তার মায়ের জিম্মায় দেয়া হয়েছে।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY