বাংলা শব্দের বিকৃত ব্যবহার কোকাকোলার বিরুদ্ধে কেন ব্যবস্থা নয়: হাইকোর্ট

0
8

বিকৃত বাংলা ভাষায় বিভিন্ন টেলিভিশন চ্যানেল ও এফএম রেডিও গুলোতে নানা রকম অনুষ্ঠান প্রচার করে যাচ্ছে বেশ কয়েক বছর যাবত। এরই ধারাবাহিকতায় এবার তেমন কর্ম সাধন করেছে বিশ্বের অন্যতম কোমল পানীয় কোকাকোলার বোতলে বাংলা শব্দের অশালীন বা বিকৃত ব্যবহার করে বিজ্ঞাপন প্রচার করছে।

বাংলা ভাষায় অশালীন ও বিকৃত শব্দের ব্যবহার কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না এবং সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে কেন শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেওয়া হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে এসব অশালীন শব্দের ব্যবহার বন্ধে কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না, রুলে তাও জানতে চেয়েছেন আদালত।

এ সংক্রান্ত রিট আবেদনের প্রেক্ষিতে বৃহস্পতিবার (১৪ মার্চ) বিচারপতি এফ আর এম নাজমুল আহসান ও বিচারপতি কে এম কামরুল কাদেরের বেঞ্চ এ রুল জারি করেন। আগামী ৪ সপ্তাহের মধ্যে সংশ্লিষ্টদের রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

আদালতে রিটের পক্ষে শুনানিতে ছিলেন রিটকারী আইনজীবী মো: মনিরুজ্জামান রানা। কোকাকোলার পক্ষে ছিলেন আইনজীবী মোস্তাফিজুর রহমান।

অন্যদিকে, রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুর্টি অ্যাটর্নি জেনারেল ব্যারিস্টার এ বি এম আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ বাশার।

এর আগে কোকাকোলার বোতলের বিজ্ঞাপনে জটিল, চরম, মাথা নষ্ট, বাবু, ঢিলা, ফাঁপর, জান, গুটি, গাব, আগুন, কড়া, অস্থির, পার্ট, প্যারা, ব্যাপক, যা-তা এর মতো বাংলা শব্দের ব্যবহার নিয়ে গত ২৭ ফেব্রুয়ারি হাইকোর্টে রিট করা হয়।

এদিকে রিটকারী আইনজীবী মো: মনিরুজ্জামান রানা সাংবাদিকদের বলেন, এ শব্দগুলো বোতলে বিজ্ঞাপন দিয়ে তারা প্রচার করছে। এটা বাংলা ভাষার প্রতি অবমাননা এবং আপত্তিজনক। আমরা চাই বাংলা শব্দের এই ধরণের বিকৃত ব্যবহার থেকে মুক্ত থাকতে। কারণ একটা শিশু দোকানে গিয়ে বলছে ‘আমাকে একটা প্যারা দেন’। ‘একটা মাথা নষ্ট দেন’। এটার তো নেগেটিভ ইম্প্যাক্ট (নেতিবাচক প্রভাব) হচ্ছে। তাই এটার ব্যবহার বন্ধ করতে হবে। এ কারণেই রিট আবেদন করা হয়েছে।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY