প্রধানমন্ত্রীর কাছে যা চাইলেন ববিতা

0
10

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ২০১৬ তে আজীবন সম্মাননা পেলেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী ববিতা। রবিবার (৮ জুলাই) সন্ধ্যায় ববিতার হাতে আজীবন সম্মাননা পদক তু‌লে দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হা‌সিনা। এ সময় ববিতা চলচ্চিত্রের উন্নয়নের জন্য প্রধানমন্ত্রীর কাছে কিছু দাবী জানান।

চলচ্চিত্রে নায়করাজের অবদানের কথা উল্লেখ করে ববিতা বলেন, ‘আমি চাই প্রয়াত শিল্পী নায়করাজ রাজ্জাকের নামে একটি ইনস্টিটিউট হোক। কিংবা তাকে নিয়ে একটি ফিল্ম আর্কাইভ প্রতিষ্ঠা করা হোক।’

চলচ্চিত্র শিল্পীদের পক্ষ থেকে তিনি বলেন, ‘শিল্পীদের জন্য স্বল্পমূল্যের বাড়ি দরকার। চলচ্চিত্রের উন্নয়নে আধুনিক যন্ত্রপাতিরও প্রয়োজন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে আমার প্রত্যাশা এটুকুই।’

এক নজরে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার- ২০১৬

১. আজীবন সম্মাননা: যৌথভাবে ববিতা ও ফারুক।

২. শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র: অজ্ঞাতনামা (ফরিদুর রেজা সাগর)।

৩. শ্রেষ্ঠ স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র: ঘ্রাণ (এস. এম. কামরুল আহসান)।

৪. শ্রেষ্ঠ প্রামাণ্য চলচ্চিত্র: জন্মসাথী (একাত্তর মিডিয়া লিমিটেড ও মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর)।

৫. শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র পরিচালক: অমিতাভ রেজা চৌধুরী (আয়নাবাজি)।

৬. শ্রেষ্ঠ অভিনেতা প্রধান চরিত্রে: চঞ্চল চৌধুরী (আয়নাবাজি)।

৭. শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী প্রধান চরিত্রে: যৌথভাবে তিশা (অস্তিত্ব) ও কুসুম শিকদার (শঙ্খচিল)।

৮. শ্রেষ্ঠ অভিনেতা পার্শ্ব চরিত্রের: যৌথভাবে আলী রাজ (পুড়ে যায় মন) ও ফজলুর রহমান বাবু (মেয়েটি এখন কোথায় যাবে)।

৯. শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী পার্শ্ব চরিত্রের: তানিয়া আহমেদ (কৃষ্ণপক্ষ)।

১০. শ্রেষ্ঠ অভিনেতা/অভিনেত্রী খল চরিত্রে: শহীদুজ্জামান সেলিম (অজ্ঞাতনামা)।

১১. শ্রেষ্ঠ শিশুশিল্পী: আনুম রহমান খান সাঁঝবাতি (শঙ্খচিল)।

১২. শ্রেষ্ঠ সংগীত পরিচালক: ইমন সাহা (মেয়েটি এখন কোথায় যাবে)।

১৩. শ্রেষ্ঠ নৃত্য পরিচালক: মো. হাবিব (নিয়তি)।

১৪. শ্রেষ্ঠ গায়ক: ওয়াকিল আহমেদ (অমৃত মেঘের বারি, চলচ্চিত্র: দর্পণ বিসর্জন)।

১৫. শ্রেষ্ঠ গায়িকা: মেহের আফরোজ শাওন (যদি মন কাঁদে, চলচ্চিত্র: কৃষ্ণপক্ষ)।

১৬. শ্রেষ্ঠ গীতিকার: গাজী মাজহারুল আনোয়ার (বিধিরে ও বিধি, চলচ্চিত্র: মেয়েটি এখন কোথায় যাবে)।

১৭. শ্রেষ্ঠ সুরকার : ইমন সাহা (বিধিরে ও বিধি, চলচ্চিত্র : মেয়েটি এখন কোথায় যাবে)

১৮. শ্রেষ্ঠ কাহিনীকার: তৌকীর আহমেদ (অজ্ঞাতনামা)।

১৯. শ্রেষ্ঠ চিত্রনাট্যকার: যৌথভাবে অনম বিশ্বাস ও গাউসুল আলম (আয়নাবাজি)।

২০. শ্রেষ্ঠ সংলাপ রচয়িতা: সৈয়দা রুবাইয়াত হোসেন (আন্ডার কনস্ট্রাকশন)।

২১. শ্রেষ্ঠ সম্পাদক: ইকবাল আহসানুল কবির (আয়নাবাজি)।

২২. শ্রেষ্ঠ শিল্পনির্দেশক: উত্তম গুহ (শঙ্খচিল)।

২৩. শ্রেষ্ঠ চিত্রগ্রাহক: রাশেদ জামান (আয়নাবাজি)।

২৪. শ্রেষ্ঠ শব্দগ্রাহক: রিপন নাথ (আয়নাবাজি)।

২৫. শ্রেষ্ঠ পোশাক ও সাজ-সজ্জা: যৌথভাবে সাত্তার (নিয়তি) ও ফারজানা সান (আয়নাবাজি)।

২৬. শ্রেষ্ঠ মেক-আপম্যান: মানিক (আন্ডার কনস্ট্রাকশন)।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY