নামাজ আদায় করতে গিয়েও আওয়ামী কর্মীদের বাধার সম্মুখীন হচ্ছি: সালাহউদ্দিন

0
22

ঢাকা-৫ আসনের উপ-নির্বাচনে বিএনপি প্রার্থী সালাউদ্দিন আহমেদ অভিযোগ করে বলেছেন, নামাজ আদায় করতে গিয়েও আওয়ামী লীগ কর্মীদের বাধার সম্মুখীন হচ্ছি। শুক্রবার (৯ অক্টোবর) যাত্রাবাড়ী ওয়াসা রোড জামে মসজিদে জুমার নামাজ পড়তে মসজিদের প্রবেশের সময় তিনি এসব কথা বলেন।

সালাউদ্দিন আহমেদ আরও বলেন, একজন ঈমানদার মুসলমান হিসেবে বৃহস্পতিবার জনতাবাগের একটি মসজিদে নামাজ আদায় করার জন্য আমি গিয়েছিলাম। কিন্তু সেখানে আওয়ামী সন্ত্রাসী বাহিনী দিয়ে আগেই সবকিছু ব্লক করে দেয়া হয়েছে। যাতে আমি সেখানে নামাজ পড়তে না পারি।

তিনি বলেন, শুক্রবার (গতকাল) আমি এখানে নামাজ পড়তে এসেছি কাউকে না জানিয়ে। এমনকি আমার দলীয় নেতাকর্মীদেরও জানানো হয়নি। আগাম জানিয়ে আসলে আওয়ামী লীগের লোকেরা আমার নামাজে বাধাগ্রস্ত করবে। যে কারণে আমি এখানে না জানিয়ে নামাজ পড়তে এসেছি।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, শুক্রবার আমি এখানে নামাজ পড়তে এসেছি কাউকে না জানিয়ে। এমনকি আমার দলীয় নেতাকর্মীদেরও জানানো হয়নি। আগাম জানিয়ে এলে আওয়ামী লীগের লোকেরা আমার নামাজে বাধাগ্রস্ত করবে যে কারণে আমি এখানে না জানিয়ে নামাজ পড়তে এসেছি।

নির্বাচনী দায়িত্বপ্রাপ্ত কিছু ম্যাজিস্ট্রেট তার নির্বাচনী প্রচারণায় বাধার সৃষ্টি করছেন এমন অভিযোগ করে সালাহউদ্দিন আহমেদ বলেন, নির্বাচন বিধিতে যে আইন আছে সে আইনে নির্দিষ্ট সময়ে আমি সবধরনের মিটিং মিছিল ও গণসংযোগ করি। কিন্তু গতকাল আমি ৬০নং ওয়ার্ডে নির্বাচনী প্রচারণায় গিয়েছিলাম সেখানে পুলিশ এসে আমাকে ফোনে একজন মহিলা ম্যাজিস্ট্রেটকে ধরিয়ে দিলেন। সেই মহিলা ম্যাজিস্ট্রেটকে আমি নাম জিজ্ঞেস করলাম, কিন্তু তিনি তার নাম বললেন না। আমি মিছিল বন্ধ করার কারণ জানতে চাইলেও তিনি আমাকে কোনো কারণ বলেননি।’

বাধার মুখে শেষ পর্যন্ত মাঠে থাকবেন কি না সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে বিএনপির প্রার্থী বলেন, ‘আমি ভোটারদেরকে আশ্বস্ত করতে চাই যে, যত বাধা আসুক আমি শেষ পর্যন্ত মাঠে থাকবো ও নির্বাচনের দিন সকালে ভোট কেন্দ্রে অবস্থান করবো।

জুমার নামাজের পরে সালাহউদ্দিন আহমেদ তার প্রধান নির্বাচনী কার্যালয়ে স্থানীয় বিএনপি এবং অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীদের সাথে মতবিনিময় করেন।

এ সময় তিনি বলেন, সরকার যদি কোনো অন্যায় নির্দেশ দেয় তা উপেক্ষা করতে হবে। কোনো ধরনের ভয়ভীতিতে পিছপা হলে চলবে না।

সালাহউদ্দিন বলেন, আমি আপনাদের সন্তান। অতীতে আপনাদের সেবা করেছি, যতদিন বাঁচব ততদিন আপনাদের সেবায় জীবন উৎসগ করব।আমাকে নানা কৌশলে মিথ্যা মামলা দিয়ে আদালতে ব্যস্ত রাখা হচ্ছে, প্রচারণায় হামলা করা হচ্ছে, প্রচারণায় পুলিশ দিয়ে বাধা দেয়া হচ্ছে। তাই আমি এলাকাবাসীর কাছে যেতে পারছি না।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY