ডেঙ্গুর অজুহাতে দ্বিগুণ বেড়েছে ডাবের দাম

0
70

ভয়াবহ আকারে ডেঙ্গু রাজধানীসহ ছড়িয়ে পড়েছে দেশের প্রায় সব জেলায়। এ সুযোগে কিছু অসাধু হাসপাতাল মালিকদের মত অতি লাভের আশা করে ব্যবসায়ীরাও ডেঙ্গু উপকারী পণ্যের দাম বাড়িয়েছে। এসবের মধ্যে সবথেকে বেশি বাড়ানো হয়েছে ডাবের দাম। স্থান ভেদে ডাবের দাম বেড়েছে দুই থেকে তিন গুণ।

সরজমিনে দেখা যায়, রাজধানীর ধানমন্ডি এলাকায় ১ মাস অগে যে ডাবের দাম ছিল ৪০ থেকে ৫০ টাকা। সেটি এখন ৮০ থেকে ৯০ টাকায় বিক্রি করা হচ্ছে। ধানমন্ডি ৪ নাম্বার রোডে ডাব কিনতে আসা আতিক নামে এক ডাব ক্রেতা বলেন, আমার বাসায় দুইজন ডেঙ্গু রোগী আছে তাদের জন্য ডাব কিনতে এসেছি কিন্তু যে ছোট ডাব ৩০ টাকা ছিল সেটি ৬০ টাকা চাওয়া হচ্ছে। আবার বড় ডাব গুলো ৪০ থেকে ৫০ টাকা ছিল। সেগুলো ১০০ টাকা চাওয়া হচ্ছে। কি করব কিনতে তো হবে। ইচ্ছের বিরুদ্ধে হলেও কিনতে হচ্ছে। এত দাম বাড়ানো হলেও যেন দেখার কেউ নেই।

এদিকে ঢাকা মেডিকেলের সামনে ডবের দাম আরো বেশি নেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। প্রতিটি ডাব দুই থেকে তিনগুণ বেশি দামে বিক্রি হচ্ছে। তবে খুচারা ব্যবসায়ীরা দাম বাড়ালেও কাওরান বাজারের পাইকারি বাজারে তেমন দাম বাড়েনি। আমদানিও ভাল রয়েছে বলে জানিয়েছে পাইকারি বিক্রেতেরা।

ডাবের পানিতে যেসব উপকারিতা রয়েছে:

ডাবের পানি প্রাকৃতিক ভাবেই স্যালাইন ওয়াটারের কাজ করে। এটি ডেঙ্গু রোগীদের জন্য খুবি উপকারি। ডাবের পানিতে উপকারী উৎসেচক থাকায় তা হজমে অত্যন্ত সাহায্য করে। অনেকেরই ভারী কিছু খাওয়ার পর ডাবের পানি উপকারি।

ডাবের পানি শরীরে পানির ভারসাম্য রাখে। তাই ক্ষতিকর খাবারের বদলে ডায়েটে রাখুন ডাবের পানি। ডাবের পানিতে প্রচুর পরিমাণে পটাশিয়াম, সোডিয়াম রয়েছে। তাই শরীরে এই সব খনিজের অভাব রুখে দিতে পারে ডাবের পানি।

ডাবের পানির মধ্যে রয়েছে মূত্রবর্ধক উপাদান। এটি ইউরিনারি ট্র্যাক্ট পরিষ্কারে সাহায্য করে।শরীরে শক্তি জোগাতে সাহায্য করে। থাইরয়েড হরমোনের উৎপাদন বাড়ায়। প্রতিদিন এক কাপ ডাবের পানি পান করলে ত্বককে আর্দ্র থাকে। এটি ব্রণের সমস্যা কমায়।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY