টেমস নদী দেখতে লন্ডনে নয়, বুড়িগঙ্গা গেলেই হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

0
54

টেমস নদী দেখতে আর লন্ডনে যেতে হবে না, বুড়িগঙ্গায় গেলেই হবে বলে মন্তব্য করেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। তিনি বলেন, দেশের কোনও নদী দখল করার চেষ্টা করা হলে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও জানান তিনি।

শনিবার ( ৬ জুলাই)কামরাঙ্গীরচরস্থ খোলামোড়া ঘাটে নির্মাণ প্রতল্পের দ্বিতীয় পর্যায় আনুষাঙ্গিক কাজের উদ্বোধনকালে এ মন্তব্য করেন তিনি।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বুড়িগঙ্গাসহ দেশের সব নদী দখলমুক্ত করে বাংলাদেশের নদীমাতৃক রূপ তুলে ধরা হবে। ঢাকার চারপাশে সার্কুলার নৌপথ চালু করে যাত্রী ও মালামাল পরিবহন সহজতর করা হবে।

তিনি আরও বলেন, বুড়িগঙ্গাকে হাতিরঝিলের ন্যায় নয়নাভিরাম করা হবে, বছর খানেকের মধ্যে এ দৃশ্য দেখা যাবে।

‘বুড়িগঙ্গা হবে আনন্দ বিনোদনের কেন্দ্রবিন্দু। তখন আমাদের টেমস নদী দেখার জন্য লন্ডন যেতে হবে না, বুড়িগঙ্গা গেলেই হবে।’

তিনি আরও বলেন, ঢাকার চার নদীর (তুরাগ, বালু, শীতলক্ষ্যা ও বুড়িগঙ্গা) তীর পুনর্দখলরোধে নদীর তীরভূমিতে সীমানা পিলার স্থাপন, ওয়াকওয়ে, তীররক্ষা বাঁধ, ওয়াকওয়ে অনপাইল ইত্যাদি নির্মাণ কাজ শুরু হয়েছে।

জানা গেছে, নৌপরিবহন মন্ত্রনালয়ের আওতাধীন বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষের নেয়া একটি প্রকল্পের মাধ্যমে এসব কাজ বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। প্রকল্পের ব্যয় ধরা হয়েছে ৮৪৪ কোটি ৫৫ লাখ টাকা।

উল্লেখ্য, ২০১৮ সালের জুলাই হতে শুরু হওয়া এ প্রকল্প শেষ হবে ২০২২ সালের জুনের মধ্যে। নদীর তীরভূমির অবৈধ দখলরোধ, দখলমুক্ত অংশের সৌন্দর্য বৃদ্ধি, পরিবেশগত উন্নয়ন, হাটার রাস্তা নির্মান এই প্রকল্পের মূল উদ্দেশ্য।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ পরিবহণ কর্তৃপক্ষ (বিআইডাব্লিউটিএ) এর চেয়ারম্যান এম মাহবুব-উল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান কামাল। উপস্থিত ছিলেন ঢাকা-৭ আসনের সংসদ সদস্যা হাজী মো. সেলিম, ঢাকা-২ আসনের সংসদ সদস্য কামরুল ইসলাম, নৌ পরিবহন মন্ত্রণালয়ের সচিব আবদুল সালাম, কলামিস্ট আবুল মকসুদ।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY