গৃহবধূকে হাত-পা বেঁধে নির্যাতন

0
19

ভোলার দৌলতখান উপজেলায় যৌতুকের দাবিতে এক গৃহবধূকে হাত-পা বেঁধে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোকজনের বিরুদ্ধে। বর্তমানে ওই গৃহবধূ দৌলতখান হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন। এ ঘটনায় দৌলতখান থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দেওয়ার পর থেকে ভুক্তভোগীর স্বামী সোহাগ হোসেন পলাতক রয়েছেন।

আহত গৃহবধূ ও তার স্বজনরা জানান, প্রায় সাত মাস আগে দৌলতখান উপজেলার সৈয়দপুর ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডের ইয়াছিনের মেয়ের সঙ্গে একই ওয়ার্ডের নাছিরের ছেলে সোহাগের সঙ্গে বিয়ে হয়।  বিয়ের কিছুদিন যেতে না যেতেই তার শ্বশুর-শাশুড়ি যৌতুক হিসেবে বিভিন্ন আসবাবপত্র দেওয়ার জন্য ওই গৃহবধূকে বিভিন্ন সময় চাপ দিয়ে আসছেন। তার দরিদ্র বাবা-মা এসব আসবাব সঠিক সময়ে দিতে না পারায় বিভিন্ন সময় বিভিন্ন অজুহাতে ওই গৃহবধূকে তার স্বামী, শ্বশুর, শাশুড়ি ও ননদরা মিলে অমানুষিক নির্যাতন করতেন।

এরই ধারাবাহিকতায় গতকাল মঙ্গলবার তার স্বামী শ্বশুর, শাশুড়ি ননদরা মিলে যৌতুকের ওইসব মালামাল না এনে দিতে পারায় ওই গৃহবধূকে একটি ঘরে আটকে তার হাত-পা বেঁধে লাঠি দিয়ে পিটিয়ে তার শরীরের বিভিন্ন অংশ জখম করেন। দৌলতখান হাসপাতালের কর্মরত চিকিৎসক জানান, আহত গৃহবধূর শরীরের একাধিক আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

এ বিষয়ে দৌলতখান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বজলার রহমান বলেন, ‘এ ঘটনায় একটি লিখিত অভিযোগ পাওয়া গেছে। তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY