খালেদা জিয়াকে চিকিৎসা সুবিধা দিলে মানবতা বলা যেত: আলাল

0
9

বিএনপির যুগ্ন মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল বলেছেন, ‘সংবিধান অনুযায়ী প্রত্যেকটি নাগরিকের যে নাগরিক অধিকার তারমধ্যে চিকিৎসা অন্যতম। যে কোন মানুষ তার পছন্দ অনুযায়ী চিকিৎসা পাওয়ার জন্য অধিকার রাখেন।’ সম্প্রতি একটি বেসরকারি টেলিভিশনে টকশো অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

আলাল বলেন, ‘বেগম খালেদা জিয়া একজন সাবেক প্রধানমন্ত্রী। একটা দলের প্রধান যিনি জীবনে কখনো কোন আসন থেকে নির্বাচনে পরাজিত হয়নি এমন একজন নেত্রী। এসব বাদ দিলেও তিনিতো একজন মায়ের জাতি। তার বয়স ৭৫ বছর। তাকে (খালেদা জিয়া) চিকিৎসা সুবিধা দিলে পরে এটা কি যথার্থ মানবতা বলা যেত না।’ তিনি আরও বলেন, ‘খালেদা জিয়ার জামিন নিয়ে সরকারের পক্ষ থেকে মানবিকতার কথা বলা হচ্ছে সেটা আমার কাছে মনে হচ্ছে অপূর্ণাঙ্গ। অর্থাৎ কোন পাখির পায়ের থেকে শিকল খুলে দিয়ে খাঁচার মধ্যে আটকে রাখলে তাকে মুক্ত বলা যায়না। তাকে খাঁচায় আটকানো পাখি বলে। বেগম খালেদা জিয়াকে সে রকম অবস্থায় রাখা হয়েছে। পায়ের শিকল খুলে দেয়া হয়েছে, কিন্তু খাঁচার মধ্যেই রাখা হয়েছে। এটা মানবিকতা হলো না।’ তিনি বলেন, ‘আজকে ছাত্রলীগের ছেলেরা ফরিদপুরে দুই হাজার কোটি টাকা পাচার করে দিয়েছে দেশের বাইরে। তাদের বিরুদ্ধে এরকম কি ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে তা এখনো আমরা জানিনা। গ্রেফতার পর্যন্তই আমরা দেখলাম। অথচ দুই কোটি টাকার অভিযোগে যেই টাকাটা বেড়ে ৮ কোটি টাকা হয়েছে। টাকা পাচার হয়নি, কিছুই হয় নি। সেই দুই কোটি টাকার জন্য খালেদা জিয়া দণ্ডিত। পাশাপাশি সূত্রগুলো দেখলে সেখানে মামবতা বা মানবিকতার স্থান কোথায় আছে এটা আমার নিজের মনের মধ্যে প্রশ্ন জাগে।’

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY