কারও অধিকার খর্ব না করে আপনার মত আপনি প্রকাশ করুন

0
67

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির সাবেক সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রীর উপ-প্রেসসচিব আশরাফুল আলম খোকন তার ফেসবুক পেইজে, রাষ্ট্রের নাগরিক হিসেবে যে কারও মত প্রকাশের স্বাধীনতা রয়েছে। তবে মত প্রকাশের নামে অন্যের অধিকার যেন ক্ষুণ বা অনাধিকার চর্চা না হয়ে যায় তার তাগিদ দিয়েছেন। তার স্ট্যাটাসটি পাঠকদের সামনে হুবহু তুলে ধরা হল-

‘নিজস্ব মতপ্রকাশের স্বাধীনতা সবার আছে। যে যার মতো তার কথা বলবে, দরকার হলে জাতিকে ইচ্ছেমতো জ্ঞান দেবে। কোনো সমস্যা নেই। কিন্তু জনাব, আপনার মতপ্রকাশ যদি অন্যের অধিকারকে খর্ব করে, অন্যের মতামতকে বাধাগ্রস্ত করে তাহলে তো তারা প্রতিবাদ করতেই পারে। সেখানে আপনার মতপ্রকাশ নিয়ে চিন্তা করার সময় কই। আপনার মত আপনি প্রকাশ করেন, আরেকজনের অধিকার খর্ব না করে। তবে হ্যাঁ, প্রতিটি রাষ্ট্রেরই কিছু সেটেল্ড ইস্যু (মৌলিক ভিত্তি) থাকে, অস্তিত্বের জায়গা থাকে। সেগুলো নিয়ে প্রশ্ন তোলা মানে আমার আপনার অস্তিত্ব্বের জায়গায় আঘাত করা। যেমন, মতপ্রকাশের স্বাধীনতার নামে আপনি যদি বলেন, মুক্তিযুদ্ধে ৩০ লাখ শহীদ হয়নি, ৩ লাখ শহীদ হয়েছে। আপনি যদি বলেন, একাত্তর সালে কোনো মুক্তিযুদ্ধ হয়নি, ভারত-পাকিস্তান যুদ্ধ হয়েছে। আপনি যদি বলেন, জাতীয় সংগীত হিন্দুর লেখা, এটা পরিবর্তন করা দরকার।

মতপ্রকাশের স্বাধীনতার নামে আপনি যদি বলেন, জিয়াউর রহমান বাংলাদেশের প্রথম রাষ্ট্রপতি। এসব নিয়ে আপনি যখন প্রশ্ন তুলবেন তখন আপনি ৩০ লাখ শহীদের রক্তে ভেজা আমাদের এই জন্মভূমির অস্তিত্বের জায়গায় আঘাত করেছেন। আর তখন বিক্ষুদ্ধ দেশপ্রেমিকরা আপনার অস্তিত্বে আঘাত করতেই পারে। জিয়াউল হক শিমুলের এ ধরনের আচরণ চরম ঔদ্ধ্যত্ব ও দেশদ্রোহীতার সামিল…! এদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হওয়া উচিত যেন ভবিষ্যতে কেউ দেশ, মানচিত্র, জাতীয় পতাকা, জাতীয় সংগীত এসব ব্যাপার নিয়ে কখনোই মশকরা করতে না পারে।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY