ঈদের আগেই বেতন-বোনাস পাবেন শ্রমিকরা

0
8

ঈদুল আজহার আগে গার্মেন্টসহ সব শ্রমিকের বেতন-বোনাস পরিশোধ নিশ্চিত করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ক্রাইসিস ম্যানেজমেন্ট কোর কমিটি।

সোমবার (৮ জুলাই) সচিবালয়ে শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে ঈদুল আজহার আগে শিল্প প্রতিষ্ঠানের সার্বিক পরিস্থিতি পর্যালোচনা ও শ্রম পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখার লক্ষ্যে অনুষ্ঠিত বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।

কারখানা মালিকসহ  সকলকে সজাগ হবার পরামর্শ দিয়ে শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী মন্নুজান সুফিয়ান বলেন, ঈদুল আজহার আগেই শ্রমিকদের জুলাই মাসের বেতন-ভাতা এবং বোনাস দিতে হবে।

প্রতিমন্ত্রী সকলের সহযোগিতায় গত ঈদুল ফিতর শান্তিপূর্ণভাবে উদযাপিত হওয়ায় মালিক-শ্রমিক, আইনশৃংঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানান।

বৈঠক শেষে শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব কে এম আলী আজম বলেন, ঈদের আগে শিল্প এলাকায় চলমান পরিস্থিতি নজরদারিতে কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শনে অধিদপ্তর এবং শ্রম অধিদপ্তরের যৌথ উদ্যোগে মনিটরিং সেল গঠন করা হবে।

কে এম আলী আজম বলেন, শিল্প কারখানার মালিকদের বলা হয়েছে আসন্ন ঈদুল আজহার আগে সব বেতন ভাতা পরিশোধ করতে হবে। এতে তারা রাজি হয়েছে। আমি আশা করি, স্টেকহোল্ডাররা আগের মতো এবারও আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করবে।

তিনি বলেন, মালিকরা সবাই স্বীকার করেছেন, তারা ঈদের আগে বেতন-বোনাস দিয়ে দেবেন। যদি বকেয়া বেতন-ভাতাও থেকে থাকে তবে এ মাসের মধ্যে পরিশোধ করার বিষয়ে সম্মত হয়েছেন তারা।

সচিব বলেন, আমরা যাতে সুন্দরভাবে সকল শ্রমিকের বেতন-ভাতা, বোনাস দিয়ে বাড়িতে ঈদ করার জন্য পাঠাতে পারি। অত্যন্ত সুন্দরভাবে তারা তাদের ঈদুল আজহা উদযাপন করতে পারেন, আমরা সেই সহযোগিতা চেয়েছি।

এর আগে শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী মন্নুজান সুফিয়ানের সভাপতিত্বে বৈঠকে মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মোল্লা জালাল, শিল্প পুলিশের মহাপরিচালক আবদুস সালাম, কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদফতরের মহাপরিদর্শক শিবনাথ রায়, বিজিএমইএ’র পরিচালক মুনসুর খালিদ, বিটিএমইএ’র পরিচালক জামাল উদ্দিন, জাতীয় শ্রমীক লীগের সভাপতি শুক্কুর মাহমুদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

ঈদুল আজহার আগে গার্মেন্টসহ সব শ্রমিকের বেতন-বোনাস পরিশোধ নিশ্চিত করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ক্রাইসিস ম্যানেজমেন্ট কোর কমিটি।

সোমবার (৮ জুলাই) সচিবালয়ে শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে ঈদুল আজহার আগে শিল্প প্রতিষ্ঠানের সার্বিক পরিস্থিতি পর্যালোচনা ও শ্রম পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখার লক্ষ্যে অনুষ্ঠিত বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।

কারখানা মালিকসহ  সকলকে সজাগ হবার পরামর্শ দিয়ে শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী মন্নুজান সুফিয়ান বলেন, ঈদুল আজহার আগেই শ্রমিকদের জুলাই মাসের বেতন-ভাতা এবং বোনাস দিতে হবে।

প্রতিমন্ত্রী সকলের সহযোগিতায় গত ঈদুল ফিতর শান্তিপূর্ণভাবে উদযাপিত হওয়ায় মালিক-শ্রমিক, আইনশৃংঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানান।

বৈঠক শেষে শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব কে এম আলী আজম বলেন, ঈদের আগে শিল্প এলাকায় চলমান পরিস্থিতি নজরদারিতে কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শনে অধিদপ্তর এবং শ্রম অধিদপ্তরের যৌথ উদ্যোগে মনিটরিং সেল গঠন করা হবে।

কে এম আলী আজম বলেন, শিল্প কারখানার মালিকদের বলা হয়েছে আসন্ন ঈদুল আজহার আগে সব বেতন ভাতা পরিশোধ করতে হবে। এতে তারা রাজি হয়েছে। আমি আশা করি, স্টেকহোল্ডাররা আগের মতো এবারও আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করবে।

তিনি বলেন, মালিকরা সবাই স্বীকার করেছেন, তারা ঈদের আগে বেতন-বোনাস দিয়ে দেবেন। যদি বকেয়া বেতন-ভাতাও থেকে থাকে তবে এ মাসের মধ্যে পরিশোধ করার বিষয়ে সম্মত হয়েছেন তারা।

সচিব বলেন, আমরা যাতে সুন্দরভাবে সকল শ্রমিকের বেতন-ভাতা, বোনাস দিয়ে বাড়িতে ঈদ করার জন্য পাঠাতে পারি। অত্যন্ত সুন্দরভাবে তারা তাদের ঈদুল আজহা উদযাপন করতে পারেন, আমরা সেই সহযোগিতা চেয়েছি।

এর আগে শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী মন্নুজান সুফিয়ানের সভাপতিত্বে বৈঠকে মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মোল্লা জালাল, শিল্প পুলিশের মহাপরিচালক আবদুস সালাম, কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদফতরের মহাপরিদর্শক শিবনাথ রায়, বিজিএমইএ’র পরিচালক মুনসুর খালিদ, বিটিএমইএ’র পরিচালক জামাল উদ্দিন, জাতীয় শ্রমীক লীগের সভাপতি শুক্কুর মাহমুদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY