‘আমার দেশ পত্রিকা ছাপালে আমি হাসানুল ইনু তাকাবোও না’

0
115

আমার দেশ পত্রিকা বন্ধ হয়নি বলে জানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুলহক ইনু। তার দাবি, আইন লঙ্ঘন করায় শুধুমাত্র পত্রিকাটির ছাপাখানা বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

বেসরকারি একটি টেলিভিশনের টক-শোতে এসে এমন তথ্য জানালেন সরকারের এ মন্ত্রী। যদিও আমার দেশ কতৃপক্ষ বলছে, সরকার পত্রিকাটি বন্ধ করে দিয়েছে।

হাসানুল হক ইনু বলেন, ‘প্রেস বা ছাপাখানাতে অবৈধ কাজ হওয়াতে ওটা বন্ধ করা হয়েছে। আমার দেশ পত্রিকার প্রকাশনা এখন পর্যন্ত স্থগিত করা হয়নি এবং এর ডিক্লারেশন বা নিবন্ধন বাতিল করা হয়নি। আমার দেশ পত্রিকা অনলাইনে চলছে।’

উপস্থাপকের এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ‘তারা অন্য ছাপাখানাতে যেতে পারে। ছাপাখানার কাছ থেকে তারা ছাপাবে, তারা যায় না কেন।’

ছাপাখানা কোন অপরাধে এতোদিন বন্ধ রাখা হয়েছে-এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘ওরাতো এখানে রাজনীতি করছে। ওরা ছাপালে তো সরকারের অবস্থান পরিষ্কার দেখা যাবে। কিন্তু ওরা না ছাপিয়ে বলছে সরকার বন্ধ করেছে। কিন্তু সরকারতো বন্ধ করেনি, ছাপাখান বন্ধ করেছে। তারা পয়সা দিয়ে যে কোনো ছাপাখানায় ছাপাবে, আমি হাসানুল ইনু তাকাবোও না।’ ‘নয়াদিগন্ত চলছে, সংগ্রাম চলছে, কই আমি হস্তক্ষেপ করেছি? যায়যায় দিন চলছে, দিনকাল চলছে…’বলেন তিনি।

ছাপাখানার আইন আছে জানিয়ে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘এটা বিচারাধীন আছে। আদালত বললে সীল খুলে দেব।’

উপস্থাপকের আরেক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ‘বেগম খালেদা জিয়াকে থ্রেট মনে করি না। আর আমার দেশ নিয়ে কি করবো আমি? বেগম খালেদা জিয়াতো আমার মানুষ পুড়িয়ে ফেলেছে। তারপরেও যখন সহ্য করেছি, আমার দেশ পত্রিকা থাকলে কি হবে।’

বন্ধ হওয়া ৩টি বেসরকারি টেলিভিশনের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘৩টা টেলিভিশনের সম্প্রচার স্থগিত আছে, তাদের লাইসেন্স বাতিল করা হয়নি। তারা সুনির্দিষ্ট উস্কানি দিয়েছিল।’

‘যখন ঢাকা শহরে তেতুল হুজুর চক্রের উস্কানিতে বাংলাদেশ অবৈধভাবে দখল করার উদ্যোগ নিয়েছিলেন বেগম খালেদা জিয়া, সেই আগুনে ঘি ঢেলেছিল দিগন্ত এবং ইসলামিক টেলিভিশন। সরাসরি সম্প্রচারের সময় এমন উস্কানিমূলক ঘটনা সম্প্রচার করেছে, তাই বাধ্য হয়েই স্থগিত করেছি, বলেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY