আবরার হত্যাকাণ্ড‘তোরা থাকবি ঘৃণা আর ধিক্কারে’

0
10

বুয়েটের তড়িৎ ও ইলেকট্রনিক প্রকৌশল বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের (১৭ তম ব্যাচ) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যায় যারা জড়িত তারা ঘৃণা আর ধিক্কারে থাকবে বলে মন্তব্য করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইনের অধ্যাপক ড. আসিফ নজরুল।

সোমবার (৭ অক্টোবর) রাতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফেসবুকে আবরারের স্ট্যাটাস শেয়ার দিয়ে ক্যাপশনে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, আবরারের খুনীরা ভাল করে শোন, যে ষ্ট্যাটাসের জন্য তোরা হত্যা করেছিস আবরারকে, তাতে এখন পর্যন্ত লাইক পড়েছে এক লক্ষের উপর, শেয়ার করেছে ৩০ হাজারের বেশী মানুষ। নিশ্চিত থাক বাংলাদেশের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশী ভালবাসার স্ট্যাটাস হবে এটা। আবরারকে কি তোরা সত্যি খুন করতে পারলি? সে চিরদিন থাকবে বাংলাদেশে মানুষের দোয়া, প্রার্থনা ভালোবাসায়। তোরা থাকবি ঘৃনা আর ধিক্কারে!

উল্লেখ্য, আবরার ফাহাদ হত্যার ঘটনায় এখন পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকসহ নয়জনকে আটক করেছে পুলিশ।

বুয়েটের শেরে বাংলা হলে অভিযান চালিয়ে এবং সিসিসিভি ফুটেজ বিশ্লেষণ করে তাদের আটক করার কথা জানিয়েছেন ঢাকা মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার কৃষ্ণপদ রায়।

এর আগে রোববার রাত ২টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের শেরে বাংলা হলের সিঁড়ি থেকে তড়িৎ কৌশল বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র আবরার ফাহাদের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

ওই হলের শিক্ষার্থীদের বরাত দিয়ে পুলিশ বলছে, দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র আবরারকে রোববার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে ডেকে নিয়ে যায় কয়েকজন। পরে শিক্ষার্থীরা রাত ২টার দিকে হলের দ্বিতীয়তলার সিঁড়িতে তার লাশ পায়।

সোমবার দুপুরে ময়নাতদন্তের পর ঢাকা মেডিকেল কলেজের ফরেনসিক বিভাগের প্রধান সোহেল মাহমুদ বলেন, ভোঁতা কিছু দিয়ে মারা হয়েছে। ফরেনসিকের ভাষায় বলে- ব্লান্ট ফোর্সেস ইনজুরি। বাংলা কথায়, ওকে পিটিয়ে মারা হয়েছে। ওই তরুণের হাতে, পায়ে ও পিঠে অসংখ্য আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। ইন্টার্নাল রক্তক্ষরণের কারণে তার মৃত্যু হয়েছে।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY