অবার্থুরের সঙ্গে ২২০ কোটি টাকায় রফা

স্মার্টকার্ড প্রকল্প

0
8

স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র (স্মার্টকার্ড) সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান ফ্রান্সের অবার্থুর টেকনোলজিকে (ওটি) ২৬ মিলিয়ন ডলার বা ২২০ কোটি টাকা দিতে হচ্ছে নির্বাচন কমিশনকে (ইসি)। বুধবার (১০ অক্টোবর) নির্বাচন কমিশন (ইসি) সচিবালয়ে দিনভর সমঝোতা বৈঠকে এ পরিমাণ অর্থ দেয়ার বিষয়ে ইসি ও ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান সম্মত হয়।

আইডেন্টিফিকেশন সিস্টেম ফর এনহ্যান্সিং একসেস টু সার্ভিসেস (আইডিইএ) প্রকল্প থেকে বিশ্বব্যাংক সরে যাওয়ায় পুরো টাকাই বাংলাদেশ সরকারকে পরিশোধ করতে হবে। সমঝোতা ওই বৈঠকে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরল হুদা, বাংলাদেশে নিযুক্ত ফ্রান্সের রাষ্ট্রদূতসহ উভয়পক্ষের উর্দ্ধতন কর্মকর্তারা অংশ নেন।

এ বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে ইসির অতিরিক্ত সচিব মো. মোখলেসুর রহমান বলেন, ইসি ও ওটির মধ্যে সমঝোতা হয়েছে। আমরা কিছু যৌথ সিদ্ধান্তে পৌঁছেছি।

অপরদিকে প্রকল্প পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. সাইদুল ইসলাম বলেন, দুই পক্ষের মধ্যে আলোচনার পর ২৬ মিলিয়ন ডলার পরিশোধের বিষয়ে সমঝোতা হয়েছে। ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের প্রথমে ৫৬ মিলিয়ন ডলার, পরে ৪১ মিলিয়ন ডলার দাবি ছিল। আমরা তাদের শর্তভঙ্গ ও বিভিন্ন দূর্বলতার দিক তুলে ধরেছি। পরে ২৬ মিলিয়ন ডলারে সমঝোতা হয়েছে। তিনি জানান, এ টাকা রাজস্ব খাত থেকে পরিশোধ করতে হবে।

ইসি সচিবালয় সূত্র জানায়, এর আগে নির্দিষ্ট সময়ে স্মার্টকার্ড দিতে না পারার ব্যর্থতা এনে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে চুক্তি বাতিল করেছিল আইডিইএ প্রকল্প। ওই সময়ে জানানো হয়েছিল, শর্ত অনুযায়ী নির্দিষ্ট সময়ে স্মার্ট কার্ড সরবরাহ ও পারসোনালাইজেশন করতে ব্যর্থ হওয়ায় ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান থেকে বাংলাদেশ ১৪০ কোটি টাকা জরিমানা আদায় করেছে। ওই বক্তব্যের রেশ না কাটতেই এবার উল্টো ২২০ কোটি টাকা পরিশোধ করতে হচ্ছে ইসিকে।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY