মার্কিন দূতাবাসের সামনে ভয়াবহ বিস্ফোরণ, নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন

0
14

বৃহস্পতিবার সকালে ভয়বাহ বিস্ফোরণে কেঁপে উঠল আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুল৷ কাবুলের পূর্ব দিকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাসের কাছেই এই বিস্ফোরণ হয়৷ ঘন কালো ধোঁওয়ার কুণ্ডলী দূর থেকে দেখা যায়, সঙ্গে ছিল বিকট শব্দ৷

কাবুল পুলিশ প্রধানের মুখপাত্র ফিরদৌস ফারামার্জ জানান নাইন্থ পুলিশ ডিস্টিক্ট্রের সদর শহরে এই বিস্ফোরণ ঘটেছে৷ গোটা এলাকা ভিআইপি জোন৷ সেখানে কড়া পুলিশি প্রহরাও ছিল৷ তার মধ্যে এই বিস্ফোরণ কীভাবে ঘটল তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ৷

পুলিশ সূত্রে খবর, মূলত পুলিশ চেকপয়েন্ট লক্ষ্য করেই হামলার ছক ছিল জঙ্গিদের৷ তবে তা সফল হয়নি৷ সাসধারাক এলাকায় এই বিস্ফোরণ হলেও, কোনও ক্ষয়ক্ষতির খবর মেলেনি৷ এখানেই রয়েছে আফগান ন্যাশনাল সিকিওরিটি অফিস৷

মার্কিন দূতাবাসে উপস্থিত এক বিদেশি সাংবাদিক প্রত্যক্ষ করেন গোটা ঘটনা৷ তিনিই ফোন করে বিষয়টি জানান পুলিশকে৷ গোটা এলাকা নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তায় মুড়ে ফেলা হয়েছে৷ তবে এই ঘটনার দায় এখনও কেউ স্বীকার করেনি৷ নাকা তল্লাশি চলছে কাবুল জুড়ে৷

মার্কিন দূত জালময় খলিলজাদ এই মুহূর্তে কাবুলেই রয়েছেন৷ তার নিরাপত্তাও বাড়ানো হয়েছে৷ উল্লেখ্য সোমবার গভীর রাতে বড়সড় বিস্ফোরণে কেঁপে ওঠে কাবুল। একটি হাউন্সিং কমপ্লেক্সে সামনে প্রবল এই বিস্ফোরণ ঘটে। গাড়িতে রাখা একটি বোমায় আত্মঘাতী এই বিস্ফোরণ ঘটে। এই গাড়ি বোমা বিস্ফোরণে কমপক্ষে ১৬জনের মৃত্যু হয়৷

আফগানিস্তানের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের মুখপাত্র নাসরাত রাহিমি জানান, বিস্ফোরক ভরা একটি ট্রাক্টরের মাধ্যমে ঘটানো হয়েছে এই বিস্ফোরণ। কিন্তু জঙ্গিরা আরও বড় হামলা চালানোর ছকে ছিল বলে মনে করছে সে দেশের নিরাপত্তা বাহিনী। কিন্তু কর্তব্যরত নিরাপত্তাবাহিনীর তৎপরতায় জঙ্গিকে খতম করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন রাহিমি। এ খবর দিয়েছে ভারতীয় গণমাধ্যম কলকাতা২৪।

অত্যন্ত সুরক্ষিত ওই কম্পাউন্ডে সেই সময় বহু বিদেশি নাগরিক ছিলেন বলে জানা গিয়েছে। জানা গিয়েছে, ঘটনার পরেই ৪০০ বিদেশি নাগরিককে দ্রুত সরিয়ে নেওয়া হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। তবে ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক চাঞ্চল্য তৈরি হয়।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY