ভারত সবসময়ই পাকিস্তানের চেয়ে একধাপ এগিয়ে, বললেন প্রাক্তন পাক সেনাকর্তা

0
12

প্রকাশ্যে সত্যিটা স্বীকার করে নিলেন অবসরপ্রাপ্ত সেনা আধিকারিক। পাকিস্তানের চেয়ে ভারত সারা জীবন এক ধাপ এগিয়ে, একথা মেনে নিলেন পাকিস্তানের আর্মি জেনারেল (অবসরপ্রাপ্ত) গুলাম মুস্তাফা। রবিবার তিনি স্বীকার করেন, যে কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা প্রত্যাহারের ঘটনাই হোক, বা সেনা মুভমেন্ট-সব ক্ষেত্রেই এগিয়ে রয়েছে ভারত।

তিনি দাবি করেন স্ট্র্যাটেজিক চিন্তাভাবনাতেও বেশ পিছিয়ে রয়েছে পাকিস্তান। আর সেখানেই ভারতের কাছে বারবার পিছিয়ে পড়ে তারা। বলাই বাহুল্য প্রাক্তন সেনাকর্তার এহেন মন্তব্যে বেশ শোরগোল পড়ে গিয়েছে পাকিস্তান জুড়ে। এক পাক সংবাদমাধ্যমে দেওয়া সাক্ষাতকারে গুলাম মুস্তাফার দাবি ৩৭০ ধারা প্রত্যাহারের বিষয়টি নিয়ে এখন হইচই করলেও, আগে থেকে ভারতের পদক্ষেপ সম্পর্কে কোনও ধারণাই করতে পারেনি পাকিস্তান, তার কারণ তাঁদের মধ্যে দূরদর্শিতার অভাব রয়েছে। কোনও কিছুর ভবিষ্যত নিয়ে পাকিস্তান ভাবে না।

এদিন কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা প্রত্যাহারের ইস্যু নিয়ে বক্তব্য রাখেন গোলাম মুস্তাফা। তিনি বলেন পাকিস্তান এরকম করে ভাবতেই পারবে না। তাঁদের চিন্তাভাবনার সংকীর্ণতাই বেশ কয়েক ধাপ পিছিয়ে দিয়েছে ভারতের থেকে। এদিন তাঁর বক্তব্যে ১৯৬৫ সালের ভারত পাকিস্তান যুদ্ধের প্রসঙ্গও উঠে আসে। তিনি বলেন ওই যুদ্ধে পাকিস্তানের পরাজয় অবশ্যম্ভাবী ছিল। কারণ, ভারত যেভাবে হামলা চালিয়েছিল, পাকিস্তান একেবারেই তার জন্য প্রস্তুত ছিল না। লাহোর ও শিয়ালকোটের অদূরেই শুরু হয়েছিল যুদ্ধ।

এর আগে, প্রাক্তন মার্কিন প্রতিরক্ষা সচিব জেমস ম্যাটিসের দাবি ছিল, চুক্তি করার জন্য বা সম্পর্ক তৈরির জন্য পাকিস্তান অত্যন্ত বিপজ্জনক দেশ৷ ম্যাটিস সম্প্রতি তাঁর লেখা একটি বই প্রকাশ করেন৷ ‘Call Sign Chaos: Learning to Lead.’ শীর্ষক বইটিতে এমনই মন্তব্য করেছেন ম্যাটিস৷ এ খবর দিয়েছে ভারতীয় গণমাধ্যম কলকাতা২৪।

মার্কিন প্রশাসনের শীর্ষ আধিকারিক জানান, ৩৭০ অনুচ্ছেদ প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারত। এটা তাদের অভ্যন্তরীণ বিষয়। তবে নিশ্চিতভাবেই ভারতের প্রধানমন্ত্রীর কাছে ট্রাম্প শান্তি ফেরানোর পদক্ষেপের কথা শুনতে চাইবেন। কাশ্মীরের মানবাধিকার কীভাবে রক্ষা করছেন, তাও জানবেন ট্রাম্প।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY