ব্রুনেইয়ের সাথে ৬টি সমঝোতা স্মারক বাংলাদেশের

0
53

ব্রুনেইয়ের সুলতান হাজি হাসানাল বলকিয়ার সাথে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দ্বিপক্ষীয় বৈঠকের পর দুই নেতার উপস্থিতিতে এসব সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়। সোমবার (২২ এপ্রিল) দুপুরে ব্রুনেই সুলতানের সরকারি বাসভবনে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

বলকিয়ার সরকারি বাসভবন ইস্তানা নুরুল ইমানের চেরাদি লায়লা কেনচানায় রাজ পরিবারের সদস্যদের সঙ্গেও মিলিত হন শেখ হাসিনা।

সই হওয়া সমঝোতাগুলো হয়েছে কৃষি, মৎস্য সম্পদ, প্রাণিসম্পদ, শিল্প ও সংস্কৃতি, যুব ও ক্রীড়া খাতের সহযোগিতা বৃদ্ধি এবং এলএনজি ও এলপিজি সরবরাহের লক্ষ্য নিয়ে।

এছাড়া কূটনৈতিক নোট বিনিময়ের ফলে দুই দেশের কূটনীতিবিদ ও অফিসিয়াল পাসপোর্টধারীরা ভিসা ছাড়াই দুই দেশে যাতায়াত করতে পারবেন বলে পররাষ্ট্র সচিব শহীদুল হক জানিয়েছেন।

ব্রুনেইয়ের সুলতানের আমন্ত্রণে তিন দিনের সরকারি সফরে রোববার ব্রুনেইয়ের রাজধানী বন্দর সেরি বেগওয়ানে পৌঁছান শেখ হাসিনা। সোমবার সকালে তিনি ব্রুনাইয়ের সুলতানের সরকারি বাসভবনে পৌঁছালে সুলতান বলকিয়ার ও যুবরাজ হাজী আল মুহতাদি বিল্লাহ তাকে স্বাগত জানান।

পররাষ্ট্র সচিব বলেন, ‘স্বাভাবিকভাবে উনারা (সুলতান ও যুবরাজ) রুমের মধ্যে দাঁড়িয়ে থাকেন। তারপর ভিজিটিং গেস্ট আসেন। কিন্তু উনারা প্রটোকল ভেঙে একেবারে করিডোরে এসে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানিয়েছেন।’


রাজ পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাতের পর সুলতানের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠকে বসেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী। বৈঠক শেষে তাদের উপস্থিতিতে সমঝোতা স্মারকে সই ও কূটনৈতিক নোট বিনিময় হয়।

পররাষ্ট্র সচিব সাংবাদিকদের ব্রিফ করার সময় প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম ও স্পিচ রাইটার নজরুল ইসলামও সেখানে উপস্থিত ছিলেন।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY