তেল আবিব থেকে জেরুজালেমে দূতাবাস সরাচ্ছে হন্ডুরাস

0
11

চলতি বছর শেষ হওয়ার আগেই তেলআবিব থেকে জেরুজালেমে নিজেদের দূতাবাস সরিয়ে নেয়ার ঘোষণা দিয়েছে মধ্য-আমেরিকার দেশ হন্ডুরাস। দেশটির নিরপেক্ষ থাকার নীতি থেকে সরে বিতর্কিত এই পদক্ষেপ ফিলিস্তিনিদের মাঝে ক্ষোভের সঞ্চার তৈরি করতে পারে।

হন্ডুরাসের প্রেসিডেন্ট জুয়ান অরল্যান্ডো হার্নান্দেজ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারে দেয়া এক বার্তায় ইসরায়েলের রাজধানী তেল আবিব থেকে ফিলিস্তিনের জেরুজালেমে সরিয়ে নেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন।

টুইটে তিনি বলেছেন, আমাদের কৌশলগত জোটের শক্তি বৃদ্ধি করতে প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহুর সঙ্গে আমি মাত্র কথা বললাম। আমরা ধারাবাহিকভাবে হন্ডুরাসের রাজধানী তেগুসিগালপা এবং জেরুজালেমে দূতাবাস উদ্বোধনের বিষয়ে আলোচনা করেছি।

জুয়ান অরল্যান্ডো বলেন, চলতি বছর শেষ হওয়ার আগেই মহামারির প্রকোপ কমে এলে আমরা এই ঐতিহাসিক পদক্ষেপ নেয়ার প্রত্যাশা করছি।

নেতানিয়াহুও ২০২০ সালের মধ্যে দূতাবাসের উদ্বোধনের ব্যাপারে আশা প্রকাশ করেছেন। বর্তমানে হন্ডুরাসে ইসরায়েলের কোনও দূতাবাস নেই। কিন্তু গত মাসে দেশটিতে কূটনৈতিক কার্যালয় চালু করেছে ইসরায়েল।

ইসরায়েল-ফিলিস্তিন সংঘাতে গত বছর হন্ডুরাস দীর্ঘদিনের নিরপেক্ষ থাকার নীতি থেকে বেরিয়ে আসার প্রক্রিয়া শুরু করে। ২০১৯ সালের সেপ্টেম্বরে জেরুজালেমে একটি বাণিজ্যিক অফিস চালু করেন হার্নান্দেজ। হন্ডুরাসের দূতাবাস তেল আবিব থেকে জেরুজালেমে সরিয়ে নেয়ার অংশ হিসেবে ওই অফিস চালু করা হয়।

গত মাসে হার্নান্দেজ বলেন, জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে হন্ডুরাস। আমরা আত্মবিশ্বাসী যে, এই স্বীকৃতি উভয় দেশের বৃহৎ কল্যাণ ও উপকার বয়ে আনবে।

লাতিন আমেরিকার অঞ্চলের দেশগুলোর মধ্যে চিলির পরই দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ফিলিস্তিনি নাগরিক হন্ডুরাসে রয়েছেন।

২০১৭ সালের ডিসেম্বরে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী হিসেবে ঘোষণা দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাস তেল আবিব থেকে সেখানে সরিয়ে নেন। সেই সময় মার্কিন প্রেসিডেন্টের নিন্দায় সরব হয়ে ওঠে মুসলিম বিশ্ব।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY