টিভি উপস্থাপিকাকে গুলি করে হত্যা

0
10

দিনের আলোতে প্রকাশ্যে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে টেলিভিশন উপস্থাপিকা ও রাজনৈতিক উপদেষ্টা মিনা মাঙ্গালকে। গত শনিবার আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলে খুব কাছ থেকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে মিনাকে। নির্মম এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় দেশটির রাজনীতিবিদ ও নারী অধিকারকর্মীরা সুবিচার প্রত্যাশা করেছেন।

আফগানিস্তানের প্রধান নির্বাহী আবদুল্লাহ খুনিদের ধরার দৃঢ় প্রত্যয় ঘোষণা করেছেন। খবর বিবিসি অনলাইনের।

অন্যদিকে, পুলিশ ঘটনার তদন্তে নেমে পরেছেন। তবে মিনা মাঙ্গালকে কে বা কারা খুন করেছে সে সম্পর্কে পরিষ্কার হতে পারে নি তারা।

দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় শনিবার একটি বিবৃতি দিয়েছে। সেখানে বলা হয়েছে, আফগানিস্তানের পার্লামেন্টের সংস্কৃতি বিষয়ক কমিশনের একজন উপদেষ্টা মিনা মাঙ্গাল। তিনি শনিবার কাজে বেরিয়েছিলেন। কিন্তু পথেই স্থানীয় সময় সকাল ৭টা ২০ মিনিটের দিকে তাকে গুলি করে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় গুরুত্ব দিয়ে তদন্ত করার আহ্বান জানিয়েছে আফগানিস্তানের সুপ্রিম কোর্ট, নাগরিক সমাজের বিভিন্ন গ্রুপ, নারীদের বিরুদ্ধে সহিংসতা বিরোধী কমিশন।

নিহত মিনা মাঙ্গাল সম্প্রতি তার ফেসবুক অ্যাকাউন্টে একটি পোস্ট দেন। ফেসবুকে মিনা বলেন, তাকে হুমকি দেয়া হয়েছে। জীবন নিয়ে শঙ্কিত তিনি।

এ বিষয়টি টুইটারে জানিয়েছেন, প্রথম সারির নারী অধিকার বিষয়ক কর্মী ওয়াজমা ফ্রোগ। তবে কি ধরণের হুমকি দেয়া হয়েছিল তা স্পষ্ট নয়।

পুলিশের এক মুখপাত্র বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে বলেছেন, তারা পারিবারিক বিরোধের বিষয়টিও তদন্ত করে দেখবেন।

টিভি উপস্থাপিকা মিনা মাঙ্গালকে হত্যার পর থেকে দেশে নারীদের বিরুদ্ধে সহিংসতার মাত্রা নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলো সরব হয়ে উঠেছে। কেউ কেউ বলেছেন, আফগানিস্তানে উচ্চ পর্যায়ের নারীদের বিরুদ্ধে যেসব সহিংসতা ঘটেছে তার বেশির ভাগই প্রকাশ্য দিনের বেলা এবং রাজধানী কাবুলের গ্রিন জোনে।

ওয়াজমা ফ্রোগ লিখেছেন, দিনের বেলা একজন নারীকে হত্যা করা হয়েছে। কারণ, একজন পুরুষ মনে করেন নারীকে হত্যা করাই উচিত। ওদিকে লিঙ্গ ভেদে সহিংসতা বৃদ্ধির নিন্দা জানিয়েছে অধিকার বিষয়ক গ্রুপগুলো। বিশেষ করে এমন হত্যাকাণ্ড বেশি ঘটে তালেবান অধ্যুষিত এলাকাগুলোতে।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY