আগামী গ্রীষ্ম পর্যন্ত থাকবে করোনা : ম্যাক্রোঁ

0
16

ইউরোপে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ শুরু হয়েছে। ফলে বিভিন্ন দেশে নতুন করে কড়াকড়ি আরোপ করতে বাধ্য হয়েছে কর্তৃপক্ষ। এদিকে, ফরাসি প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাক্রোঁ সতর্ক করেছেন যে, করোনার প্রভাব আগামী গ্রীষ্ম পর্যন্ত থাকবে।

ফরাসি প্রেসিডেন্ট এক বিবৃতিতে বলেন, তার দেশের লোকজনকে কমপক্ষে আগামী বছরের মাঝামাঝি পর্যন্ত করোনাভাইরাসের সঙ্গে লড়াই করতে হবে। দেশটিতে সম্প্রতি করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা আবারও বাড়তে শুরু করেছে। এর মধ্যেই সংক্রমণ ১০ লাখ ছাড়িয়ে গেছে।

শুক্রবার ফ্রান্সে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছে আরও ৪০ হাজারের বেশি মানুষ। অপরদিকে মারা গেছে ২৯৮ জন। শুধু ফ্রান্স নয় রাশিয়া, পোল্যান্ড, ইতালি এবং সুইজারল্যান্ডের মতো দেশগুলোতেও সংক্রমণ বাড়ছে।

ইউরোপের ক্রমাগত সংক্রমণ বৃদ্ধি করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের ক্ষেত্রে জটিল অবস্থা বলে উল্লেখ করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। পরিস্থিতি খারাপ হওয়ার আগেই প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছে সংস্থাটি।

গত ১০ দিনে ইউরোপে করোনা সংক্রমণ বেড়েছে দ্বিগুণেরও বেশি। এর মধ্যেই ইউরোপে মোট সংক্রমণ ৭৮ লাখ ছাড়িয়ে গেছে। অপরদিকে, পুরো ইউরোপে করোনা সংক্রমণে মৃত্যু হয়েছে প্রায় ২ লাখ ৪৭ হাজার মানুষের।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা সতর্ক করে বলেছে, করোনা মহামারির কারণে উত্তর গোলার্ধে অবস্থিত দেশগুলো ভয়াবহ সঙ্কটের মধ্যে রয়েছে। সংস্থাটির প্রধান তেদ্রোস আধানম ঘেব্রিয়েসুস সাংবাদিকদের বলেন, আগামী কয়েক মাস খুব কঠিন সময়। বেশ কিছু দেশ ভয়াবহ বিপজ্জনক অবস্থার মুখে পড়তে পারে।

রাজধানী প্যারিসের একটি হাসপাতাল পরিদর্শনের সময় ম্যাক্রোঁ বলেন, তাকে বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন যে তাদের ধারণা এই ভাইরাসের উপস্থিতি আগামী গ্রীষ্ম পর্যন্ত থাকবে। ফ্রান্সে নতুন করে পুরোপুরি বা আংশিক লকডাউন জারি হবে কিনা সে বিষয়টি এখনই নিশ্চিত করা সম্ভব নয় বলেও উল্লেখ করেছেন তিনি।

৪ কোটি ৬ লাখ জনসংখ্যার দেশটিতে কারফিউয়ের সময়সীমা আরও বাড়ানো হয়েছে বলে জানানো হয়েছে। শুক্রবার রাত থেকে আরও ছয় সপ্তাহ রাত্রিকালীন কারফিউ জারি থাকবে। প্রেসিডেন্ট ম্যাক্রোঁ বলেন, দেশটিতে দৈনিক সংক্রমণ ৩ থেকে ৫ হাজারের মধ্যে নেমে আসলে হয়তো কারফিউ তুলে নেওয়া হতে পারে। চলতি সপ্তাহে ইউরোপের প্রথম কোনো দেশ হিসেবে স্পেনে সংক্রমণ ১০ লাখ ছাড়িয়ে গেছে।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY