বাঁচা-মরার লড়াই আজ, সাকিবের মুখোমুখি মাশরাফি

0
55
বাঁচা-মরার লড়াই আজ, সাকিবের মুখোমুখি মাশরাফি

বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগের বিপিএলের ফাইনালের আগের ফাইনাল! এই টুর্নামেন্টের মতো অনেকগুলো দ্বৈরথের গায়েই এ তকমা সেঁটে দেওয়া যায়। রংপুর রাইডার্স-কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানসের প্রথম কোয়ালিফায়ারে কি তা ছিল না? কিংবা এলিমিনেটরে ঢাকা ডায়নামাইটস-চিটাগং ভাইকিংসের বাঁচা-মরার লড়াই? তবে সবচেয়ে প্রযুক্ত বোধ করছে আজকের দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ার। রংপুর-ঢাকার মতো তারায় ঠাসা দুটো দল এখানে মুখোমুখি হবে বলে! এ দল দুটি গত আসরের দুই ফাইনালিস্ট ছিল বলে।

মাশরাফি-গেইল-রুশোদের সঙ্গে সাকিব-পোলার্ড-নারিনদের এ আগুনে লড়াই তাই আক্ষরিক অর্থেই ফাইনালের আগের ফাইনাল।

বুধবার (৬ ফেব্রুয়ারি) যে দল জিতবে, কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানসের বিপক্ষে পরশুর ফাইনাল খেলবে তারাই। সেই টিকিট কাটার সুযোগ আগে এসেছিল রংপুর রাইডার্সের সামনে। কিন্তু কোয়ালিফায়ারে কুমিল্লার বিপক্ষে ম্যাচ জিততে পারেনি। অন্যদিকে ঢাকা ডায়নামাইটস ‘ফাইনালের পর ফাইনাল’ খেলছে। লিগ পর্বের শেষ ম্যাচে খুলনা টাইটানসের কাছে হারলে টুর্নামেন্ট থেকে বিদায় হয়ে যেত। জিতেছে তাতে। এলিমিনেটরে চিটাগংয়ের কাছে হারলেও একই পরিণতি। জিতেছে সেই ম্যাচেও।

আজ রংপুরের বিপক্ষে তাদের তাই ‘তৃতীয় ফাইনাল’। এ জাতীয় ম্যাচের গুরুত্ব ভালোই জানা মাশরাফি বিন মর্তুজার। পরশু কুমিল্লার কাছে ম্যাচ হারের পর সেটিই বলছিলেন রংপুর রাইডার্সের অধিনায়ক, ‘এই ধরনের ম্যাচে যেদিন যারা ভালো খেলে, তারাই জেতে। বাঁচা-মরার ম্যাচে যারা প্রসেস ঠিক রাখে, নির্দিষ্ট কিছু সময়ে ভালো খেলতে পারে—তারাই ফাইনাল খেলবে। চিটাগং ভাইকিংসের বিদায়ের পর তিনটি দলের সামনেই সুযোগ ছিল। এখন সুযোগ ঢাকা ও আমাদের সামনে। যারা জিতবে, তারাই ফাইনালে।’

কাল বিকেলে মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামের ঐচ্ছিক অনুশীলনে আসে ঢাকা ডায়নামাইটস। রংপুর রাইডার্সের কোনো অনুশীলন ছিল না। ধানমণ্ডির এক স্কুলে মাদকের বিরুদ্ধে প্রচারণায় অংশ নিতে যান দলটির কোচ টম মুডি, ক্যারিবিয়ান তারকা ক্রিস গেইলসহ কয়েকজন। ঢাকা ডায়নামাইটসের বিপক্ষে ভালো করার প্রতিজ্ঞা শুনিয়ে যান রংপুরের কোচ মুডি, ‘ঢাকার বিপক্ষে আমাদের সেরা ক্রিকেট খেলতে হবে। আগের ম্যাচে আমরা হেরেছি। এখন পরের ম্যাচে ভালো করতেই হবে। সবাই জানে, ঢাকা খুব ভালো দল। কিন্তু ওদের বিপক্ষে ভালো করার জন্য আমরা দৃঢ়প্রতিজ্ঞ।’

টানা ছয় জয় নিয়ে প্লে-অফ রাউন্ড শুরু করে রংপুর রাইডার্স। কিন্তু ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নরা হেরে যায় কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানসের কাছে। এ হারের জন্য রান কিছুটা কম হওয়াকেই দায় অধিনায়ক মাশরাফির, ‘১৫-২০ রান বেশি হওয়া উচিত ছিল। প্রথম ছয় ওভারে আমরা অনেক সময় নিয়েছি। তখন তো এমনও না যে অনেক উইকেট পড়েছে।

তিনি আরও বলেন, ওখানটাতেই আমরা পিছিয়ে গিয়েছি। পরে হাওয়েল ও রুশোর ব্যাটিংয়ে আমরা লড়াই করার জায়গায় যাই। তবে রাতের উইকেট ব্যাটিংয়ের জন্য ভালো হয় বলে আরো ১৫-২০ রান বেশি হলে ভালো হতো।’ এবি ডি ভিলিয়ার্স ও অ্যালেক্স হেলস না থাকায় আগে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত বলে জানিয়েছিলন রংপুরের অধিনায়ক, ‘আমরা টুর্নামেন্টজুড়ে রান তাড়া করায় দক্ষতা দেখিয়েছি। তবে এ খেলায় ডি ভিলিয়ার্স ও হেলস ছিল না। তার ওপর এমন বড় ম্যাচে ভালো স্কোর করলে প্রতিপক্ষকে চাপে ফেলা যায়। আমাদের করা ওই ১৬৫ রানও চাপ হতে পারত, যদি উইকেট নিতে পারতাম।’

সেটি হয়নি। স্থানীয় ক্রিকেটারদের কাছ থেকেও ভালো পারফরম্যান্স পায়নি রংপুর রাইডার্স। ফাইনালে ওঠার ‘লাইফ লাইন’-এ আজ সেটি খুব করে চাইবেন নিশ্চয়ই মাশরাফি।

ফাইনালের টিকিটের জন্য মুখিয়ে আছে ঢাকা ডায়নামাইটসও। প্রতিপক্ষ রংপুর রাইডার্সকে অবশ্য ভীষণ সমীহ ঢাকার কোচ খালেদ মাহমুদের, ‘ওরা গত বছরের চ্যাম্পিয়ন দল। আর মাশরাফির নেতৃত্বে খেলা দলটিকে ছোট করে দেখার কিছুই নেই। দারুণ লড়াকু দল। সুতরাং কাল অবশ্যই আমাদের ভালো ক্রিকেট খেলতে হবে।’ এটিকে ফাইনালের আগের ফাইনাল বলায়ও আপত্তি নেই তাঁর, ‘আমাদের জন্য আসলে প্রতিটি ম্যাচই ফাইনাল। খুলনার বিপক্ষে লিগ পর্বের শেষ ম্যাচ থেকেই আমাদের নক আউট পর্ব শুরু। এখন স্নায়ুর খেলা, বড় খেলা, এখানে চাপ থাকবে। যে দল তা মানিয়ে নিতে পারবে, সেই দলই হয়তো ম্যাচ জিতবে। তবে সত্য বলতে কী, দুই দলই সামর্থ্য রাখে ম্যাচ জয়ের।’

ঢাকা ডায়নামাইটসের শুরুর ওই চার জয় এখন গুরুত্বহীন। রংপুর রাইডার্সের টানা ছয় ম্যাচ জিতে প্লে-অফে আসাটাও কেমন অর্থহীন হয়ে গেল কুমিল্লার বিপক্ষে সর্বশেষ ম্যাচে! এখন অর্থ কিংবা গুরুত্ব সবই আজকের ঢাকা-রংপুর মহারণ ঘিরে। এখানে জিতলে ফাইনাল, হারলে বিদায়। ফাইনালের আগের এই ফাইনালের রোমাঞ্চের রেণু উড়বে আজ মিরপুরের ক্রিকেটমঞ্চে!

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY