‘পেটানোর’ ঘটনায় যা বললেন ক্রিকেটার শাহাদাত

0
39

গত রোববার (৯ সেপ্টেম্বর) দুপুরে রাজধানীর মোহাম্মদপুরের আসাদগেটের কাছে শাহাদাতের ব্যক্তিগত গাড়িতে এক সিএনজির ধাক্কা লাগে। আর তাতেই ভীষণ ক্ষিপ্ত হয়ে উঠেন তিনি। গাড়ি থেকে নেমেই ওই সিএনজি চালকের কলার ধরে চড় লাগাতে শুরু করেন দীর্ঘদিন জাতীয় দলের বাইরে থাকা শাহাদাত হোসেন।

প্রত্যক্ষদর্শীদের দাবি, শাহাদাত হোসেনের ব্যক্তিগত গাড়ির সঙ্গে একটি সিএনজির ধাক্কা লাগে। যার কারণে গাড়ি থেকে নেমে সঙ্গে সঙ্গে সিএনজি চালকের শার্টের কলার চেপে ধরেন এই ক্রিকেটার। সিএনজি চালকে থাপ্পড়ও মারেন শাহদাত।

উল্লেখ্য, এর আগেও নিজ বাসার গৃহকর্মীকে খুন্তি দিয়ে ছ্যাকা দেওয়া ও লাঠি দিয়ে পেটানোর অপরাধে তিন মাস কারাগারে ছিলেন তিনি।

তবে এ ঘটনায় বিরক্তি প্রকাশ করেছেন শাহাদাত হোসেন। ওই ঘটনায় নিজের নয় সেই চালকের উপরেই দোষ চাপালেন তিনি।

যদিও চালক ও প্রত্যক্ষদর্শীদের দাবি, অটোরিকশা চালকের কোন কথাই শোনেননি শাহাদাত। গাড়ি থেকে নেমেই কলার ধরে ফেলেন। এক পর্যায়ে চালককে চড় মেরে বসেন এই ফাস্ট বোলার। চারপাশে ভিড় বাড়তে থাকলে এক পর্যায়ে শাহাদাত ঘটনাস্থল থেকে দ্রুত চলে যান।

এদিকে সিএনজি চালককে মারার অভিযোগ অস্বীকার করে শাহাদাত বলেন, ‘আমার জ্বর ছিল। তাই ধীরেই গাড়ি চালাচ্ছিলাম। হঠাৎ করে সিএনজিটি এসে আমার গাড়ির সামনের দিকে আঘাত করে। এতে আমার গাড়ির সামনের দিকের বাম্পার ও হেডলাইট ভেঙে যায়। এ ঘটনার পর আমি তাকে মাফ চাইতে বললেও যে উচ্চ গলায় কথা বলতে থাকে। এক পর্যায়ে আমি মেজাজ হারিয়ে তার উপর চড়াও হই। আমি কোনো ক্ষতি পূরণ চাইনি বা কোনো মামলাও করিনি।’

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY