জিম্বাবুয়েকে উড়িয়ে বিশাল জয় বাংলাদেশের

0
12
২০১৭ সালে টেস্টে যেসব রেকর্ড অর্জন করল টাইগাররা!
২০১৭ সালে টেস্টে যেসব রেকর্ড অর্জন করল টাইগাররা!

জিম্বাবুয়েকে ২১৮ রানের বিশাল ব্যবধানে হারিয়ে মিরপুরে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টে জয় তুলে নিয়েছে বাংলাদেশ। এই জয়ে দুই ম্যাচের সিরিজে ১-১ ব্যবধানে সমতায় ফিরল টাইগাররা। এর আগে সিলেটে জয়ের ফলে সুসংহত অবস্থানে ছিল জিম্বাবুয়ে। ফলে দ্বিতীয় টেস্টে জয়ের বিকল্প ছিলনা বাংলাদেশের। সব শঙ্কা উড়িয়ে দিয়ে বড় জয়ে শেষতক সম্মান রক্ষা করল মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের দল।

দ্বিতীয় ইনিংসে বাংলাদেশের ৪৪৩ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে ২২৪ রানেই গুটিয়ে যায় জিম্বাবুয়ে। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ১০৬ রান করেছেন ব্রেন্ডন টেইলর। এছাড়া ৪৩ রান আসে ব্রেন্ডন চারির ব্যাট থেকে। বাংলাদেশের পক্ষে ৩৮ রানে ৫ উইকেট লাভ করেছেন মেহেদি হাসান মিরাজ । পিটার মুর ও টেইলরের জুটিটাই যা প্রতিরোধ গড়ে তুলেছিল; এরপর টেইল এন্ডাররা আর দাঁড়াতেই পারেননি সেভাবে। মিরাজ-তাইজুলদের আক্রমণে ২২ অলআউট হয়ে যায় সফরকারীরা। এক প্রান্তে থেকে একাই লড়াই চালিয়ে গেছেন টেইলর। ১০৬ রানের অপরাজিত শতকে ছিল ১০টি চারের মার।

লাঞ্চের পর অল্প সময়ের ব্যবধানে পিটার মুর, চাকাবার ও ত্রিপানোর বিদায়ের পর টাইগাররা চড়াও হয় উজ্জীবিতভাবে। টেইলরের সাথে তার ৬৬ রানের জুটি বেশ বিপজ্জনক হয়ে উঠছিল। তবে বোলিং আক্রমণে অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ মিরাজকে আনায় সাফল্য পায় টাইগাররা। এরপর চাকাবা রান আউট হলে আরো চাপে পড়ে জিম্বাবুয়ে। সেই চাপ থেকে ঘুরে দাঁড়ানোর আগেই ত্রিপানোকে ফিরিয়ে দেন মিরাজ। এরপর দ্রুত প্যাভিলিয়সে ফেরেন মাভুতা ও জার্ভিস। চাতারা অসুস্থ থাকায় ব্যাটিংয়ে নামেননি। ফলে ২২৪ রানেই থেমে যায় সফরকারীদের ইনিংস।

এর আগে মুশফিবের ডাবল সেঞ্চুরি ও মুমিনুলের ১৬১ রানের ইনিংসের সুবাদে ৭ উইকেটে ৫২২ রান করে প্রথম ইনিংস ঘোষণা করে বাংলাদেশ। জবাবে ৩০৪ রানে গুটিয়ে যায় জিম্বাবুয়ে। এরপর নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে শুরুতেই ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে টাইগাররা। তবে মাহমুদুল্লাহর সেঞ্চুরি ও মোহাম্মদ মিথুনের ৬৭ রানের ৬ ২২৪ রান করে ইনিংস ঘোষণা করে টাইগাররা। ৪৪৩ রানের বড় লক্ষ্যে খেলতে নেমে ২২৪ রানে থেমে যায় জিম্বাবুয়ের দ্বিতীয় ইনিংস।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY