বিচ্ছেদ কার্যকর আজ, এ নিয়ে যা বললেন অপু!

0
55

শাকিব-অপুর সংসার টিকিয়ে রাখতে অপু বিশ্বাস অনেকটাই নমনীয় হয়েছেন। তবে শাকিব নমনীয়তা দেখায় নি। সোমবার (১২ মার্চ) আনুষ্ঠানিক ভাবে কার্যকর হচ্ছে শাকিব-অপুর বিয়ে বিচ্ছেদ। এদিন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) শাকিব-অপুর তৃতীয় ও শেষ শুনানি হবে।

এর আগের দুটি শুনানিতে শাকিব আসেননি। অপু প্রথম শুনানিতে এলেও দ্বিতীয়টাতে আসেননি। সমঝোতার কোনো সুযোগ নেই দেখে তিনিও বিচ্ছেদ মেনে নেন। গত বছরের ২২ নভেম্বর অপুকে তালাকনামা পাঠান শাকিব। গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়, তিন মাস পর কার্যকর হবে বিবাহ বিচ্ছেদ। সেই হিসাবে ২২ ফেব্রুয়ারি শাকিবের বিয়ে বিচ্ছেদের চিঠি পাঠানোর তিন মাস পূর্ণ হয়।

তবে ওই সময় শাকিব-অপুর বিবাহ বিচ্ছেদ কার্যকর হয়নি বলে জানান ঢাকা সিটি করপোরেশনের (অঞ্চল-৩) প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা হেমায়েত হোসেন। এই প্রসঙ্গে তিনি বলেন, শাকিব খান যেদিন স্বাক্ষর করেছিলেন, সেদিন থেকে তিন মাস পর কার্যকর হবে ব্যাপারটা এমন নয়। আমরা সিটি করপোরেশন তাদের তিন মাসে তিনবার ডাকব, সেই তৃতীয়বার বিষয়টির ফয়সালা হবে। তিনি আরও বলেন, আগামী ১২ মার্চ তৃতীয় ও শেষবারের জন্য তাদের আবারও ডাকা হয়েছে। এদিন যদি তারা না উপস্থিত হন, তাহলে বিবাহ বিচ্ছেদ কার্যকর হয়ে যাবে।

শেষ দিনের ডাকে তাদের দুজনের কেউই যে হাজির হচ্ছেন না এটা শাকিব-অপু উভয়ের পক্ষ থেকেই নিশ্চিত করা হয়েছে। তবে ব্যক্তিগত জীবনের টানাপোড়েনের মধ্যেও নিজের প্রতি দৃঢ় আস্থা রাখেন অপু বিশ্বাস। নেতিবাচক কোন কিছু মনে ধারণ করে পিছনে পড়ে থাকতে চাননা এই অভিনেত্রী। এমনকি ১২ই মার্চ শাকিবের সাথে যে আনুষ্ঠানিকভাবে বিয়ে বিচ্ছেদ কার্যকর হচ্ছে, এই বিষয়েও কোন মাথাব্যাথা নেই।

এ বিষয়ে গণমাধ্যমকে অপু বলেন, ‘একজনের পক্ষে সংসার ধরে রাখা সম্ভব নয়। এই জায়গাটায় উভয় পক্ষের সমান আগ্রহ দরকার হয়। শুরু থেকেই নিজের সংসার টিকিয়ে রাখার জন্য এককভাবে চেষ্টা করে গেছি। কিন্তু বিপরীত দিক থেকে আমার চেষ্টাকে মূল্যায়ন করা হয়নি। তাই আমি আমার মতো করে পথ চলবো। ছেলেকে নিয়ে একা চলার মতো যোগ্যতা আমার আছে।’

নিজের বর্তমান নিয়ে অপু বিশ্বাস বলেন, ‘আমি খুব ভালো আছি। জয়কে নিয়ে আমার সুন্দর সময় কেটে যায়। আর বেশকিছু কাজও সামনে শুরু হবে। সেজন্য প্রস্তুতি নিচ্ছি।’

তিনি বলেন, ‘এবার নতুন লুকে কাজে ফিরব। নিজের ওজন কমানো কঠিন কাজ হলেও অনেকটা কমিয়েছি। আর রবিন খানের নতুন সিনেমার কাজ দ্রুত শুরু করব।’ অপু বলেন, ‘মা হওয়ার পর ওজন বেড়ে বেশ মুটিয়ে গিয়েছিলাম। এখন অনেকটাই কমেছে। নিয়ম মাফিক খাওয়া-দাওয়া, ব্যায়াম করছি।’

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY